ছলাতের হিফাযাত না করলে ক্বিয়ামাতের দিন সে ক্বারূণ, ফিরআউন, হামান ও উবাই ইবনে খালাফের সাথী হবে

বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম

حَدَّثَنَا أَبُو عَبْدِ الرَّحْمَنِ، حَدَّثَنَا سَعِيدٌ، حَدَّثَنِي كَعْبُ بْنُ عَلْقَمَةَ، عَنْ عِيسَى بْنِ هِلَالٍ الصَّدَفِيِّ، عَنْ عَبْدِ اللهِ بْنِ عَمْرٍو، عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ أَنَّهُ: ذَكَرَ الصَّلَاةَ يَوْمًا فَقَالَ: مَنْ حَافَظَ عَلَيْهَا؟ كَانَتْ لَهُ نُورًا، وَبُرْهَانًا، وَنَجَاةً يَوْمَ الْقِيَامَةِ، وَمَنْ لَمْ يُحَافِظْ عَلَيْهَا لَمْ يَكُنْ لَهُ نُورٌ، وَلَا بُرْهَانٌ، وَلَا نَجَاةٌ، وَكَانَ يَوْمَ الْقِيَامَةِ مَعَ قَارُونَ، وَفِرْعَوْنَ، وَهَامَانَ، وَأُبَيِّ بْنِ خَلَفٍ

রসূল(স) বলেন, “যে ব্যক্তি ছলাতের হিফাযাত করবে, ক্বিয়ামাতের দিন তা তার জন্য জ্যোতি, প্রমাণ ও মুক্তির উপায় হবে। আর যে তার হিফাযাত করবে না, তা তার জন্য জ্যোতি, প্রমাণ ও মুক্তির উপায় হবে না। ক্বিয়ামাতের দিন সে ক্বারূণ, ফিরআউন, হামান ও উবাই ইবনে খালাফের সাথী হবে।” (মুসনাদে আহমাদ, ২/১৬৯, হা/৬৫৭৬; ইবনে হিব্বান, হা/১৪৬৭; দারিমী, হা/২৭৬৩; বাইহাক্বী, শু’আবুল ঈমান, হা/২৫৬৫; ত্বাবারাণী, মু’জামুল কাবীর, ১৪/১২৭, হা/১৪৭৪৬; মুসনাদে আবদ ইবনে হুমাইদ, হা/৩৫৩; মুনযিরী, আত-তারগীব ওয়াত-তারহীব, হা/৮৩২; মিশকাত, হা/৫৭৮)

ইমাম নাছিরুদ্দীন আলবানী বলেন, হাদীছটি দুর্বল। (নাছিরুদ্দীন আলবানী, যঈফ আত-তারগীব ওয়াত-তারহীব, হা/৩১২; তাহক্বীক্ব মিশকাত, হা/৫৭৮)

ইমাম নাছিরুদ্দীন আলবানী প্রথমে এই হাদীছকে ছহীহ বলেন কিন্তু পরবর্তীতে এটিকে দুর্বল বলেন। (আবুল হাসান শাইখ, তারাজুআ’তুল আলবানী, অধ্যায়ঃ যে সমস্ত হাদীছকে ছহীহ থেকে দুর্বল বলেছেন, হা/৩৭)

কিন্তু উক্ত হাদীছটি ছহীহ। কেননা এই হাদীছের রাবী ঈসা ইবনে হিলাল ছাদাফী সত্যবাদী ও হাসানুল হাদীছ। (মিযযী, তাহযীবুল কামাল, রাবী নং ৪৬৬৯; যাহাবী, আল-কাশিফ, রাবী নং ৪৪০৫)

ইমাম ইবনে হিব্বান তার “ছহীহ” তে (হা/১৪৬৭) হাদীছটি এনেছেন। অর্থাৎ তার নিকট এই হাদীছটি ছহীহ এবং এর রাবীগণ ছিক্বাহ।

ইমাম হাইছামী বলেন, ইমাম আহমাদ ও ইমাম ত্বাবারাণী ‘মু’জামুল আওসাত্ব’ ও ‘মু’জামুল কাবীর’ গ্রন্থে এটিকে বর্ণনা করেছেন। ইমাম আহমাদের রাবীগণ ছিক্বাহ। (হাইছামী, মাজমাউয যাওয়ায়িদ, ১/২৯২, হা/১৬১১)

ইমাম মুনযিরী বলেন, এর সানাদ জাইয়িদ বা উত্তম। (মুনযিরী, আত-তারগীব ওয়াত-তারহীব, হা/৮৩২)

আহমাদ শাকির বলেন, এর সানাদ ছহীহ। (আহমাদ শাকির, তাহক্বীক্ব মুসনাদে আহমাদ, ২/১৬৯, হা/৬৫৭৬)

শু’আইব আরনাউত্ব বলেন, এর সানাদ হাসান। (শু’আইব আরনাউত্ব, তাহক্বীক্ব মুসনাদে আহমাদ, ২/১৬৯, হা/৬৫৭৬)

হাফিয যুবাইর আলী যাঈ বলেন, এর সানাদ হাসান। (যুবাইর আলী যাঈ, তাহক্বীক্ব মিশকাত, হা/৫৭৮)

হুসাইন সালিম আসাদ দারানী বলেন, এর সানাদ ছহীহ। (হুসাইন সালিম আসাদ দারানী, তাহক্বীক্ব দারিমী, হা/২৭৬৩)

আবদুল আলী আবদুল হামীদ বলেন, এর রাবীগণ ছিক্বাহ। (আবদুল আলী আবদুল হামীদ, তাহক্বীক্ব শু’আবুল ঈমান, হা/২৫৬৫)

মুছত্বাফা ইবনে আদাভী বলেন, হাদীছটি হাসান। (মুছত্বাফা ইবনে আদাভী, তাহক্বীক্ব মুসনাদে আবদ ইবনে হুমাইদ, হা/৩৫৩)

ইমাম তিরমিযী ঈসা ইবনে হিলাল ছাদাফীর হাদীছের সানাদকে হাসান ছহীহ বলেছেন। (তিরমিযী, হা/২৫৮৮)

ইমাম ইয়াক্বূব ইবনে সুফিয়ান আল-ফারিসী ঈসা ইবনে হিলাল ছাদাফীকে ছিক্বাহ তাবিঈদের অন্তর্ভুক্ত করেছেন। (ইয়াক্বূব ইবনে সুফিয়ান আল-ফারিসী, কিতাবুল মা’রিফাতি ওয়াত-তারীখ, ২/৫১৫)

উক্ত হাদীছের ব্যাখ্যায় ইমাম ইবনুল ক্বাইয়্যিম বলেন, (১) অর্থ-সম্পদের মোহে যে ব্যক্তি ছলাত থেকে গাফেল থাকে, তার হাশর হবে মূসা(আ) এর চাচাতো ভাই ক্বারূণ এর সাথে। (২) রাষ্ট্রীয় বা রাজনৈতিক ব্যস্ততার অজুহাতে যে ব্যক্তি ছলাত থেকে গাফেল থাকে, তার হাশর হবে মিসরের অত্যাচারী শাসক ফিরআউনের সাথে। (৩) মন্ত্রীত্ব বা চাকুরীগত কারণে যে ব্যক্তি ছলাত থেকে গাফেল থাকে, তার হাশর হবে ফিরআউনের প্রধানমন্ত্রী হামানের সাথে। (৪) ব্যবসায়িক ব্যস্ততার অজুহাতে যে ব্যক্তি ছলাত থেকে গাফেল থাকে, তার হাশর হবে কাফির ব্যবসায়ী উবাই ইবনে খালাফের সাথে। (ইবনুল ক্বাইয়্যিম, আছ-ছলাতু ওয়া হুকমু তারিকিহা, পৃঃ ৫১)

সুতরাং, ছলাতের হিফাযাতের হাদীছটি ছহীহ। তাই আমাদের সকলের উচিত তাক্বলীদ মুক্ত হয়ে ক্বুর’আন ও ছহীহ হাদীছ দৃঢ়ভাবে গ্রহণ করা এবং মেনে চলা। আল্লাহ আমাদের সকলকে হিদায়াত দান করুক। আমীন

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s